একেশ্বরবাদের সুখ দুঃখ

লিখেছেনঃ দূরের পাখি প্রাচীন পৃথিবীর ধর্মচিন্তায় দেব-দেবতা আর অলৌকিক শক্তির কোনো পরিমাণগত সীমা ছিল না। সমস্তই ঐশ্বরিক, সমস্তই একইসাথে প্রাকৃতিক আবার অতিপ্রাকৃতিক। পূর্বে ছিল সনাতন, পশ্চিমে ছিল পৌত্তলিকতা। সম্ভবত সমস্ত কিছুর মূলে, সমস্ত ধর্মাচারের মূলে ছিল বোবাকালা আর মানুষের নিয়ন্ত্রণের বাইরের নির্মোহ বাস্তবতা ও ভাগ্যকে নিয়ন্ত্রণ করার দূরাশা। কোনো না কোনোভাবে কোনো না কোনো একটা …

Continue reading একেশ্বরবাদের সুখ দুঃখ

বাবা-মা বনাম স্ত্রী

উপমহাদেশে নিউক্লিয়ার পরিবার নিয়ে এক প্রকার ঋণাত্মক ধারণা রয়েছে যা আমাদের নাটক-সিনেমার অন্যতম উপাদান। এর পিছনে আসলে কাজ করে আমাদের সেন্টিমেন্ট, বাস্তবতা নয়। হ্যাঁ, এটা ঠিক যে মানব শিশুর পূর্ণাঙ্গতা প্রাপ্তিতে তুলনামূলক অধিক সময় লাগে এবং এ সময়ে যৌথ পরিবার নিউক্লিয়ার পরিবারের চেয়ে অধিকতর সহায়ক হবার কথা। কিন্তু বর্তমানের বাস্তবতাটা একটু ভিন্নরকম। পূর্বে আমাদের সমাজগুলো …

Continue reading বাবা-মা বনাম স্ত্রী

লালন ও আমাদের সংস্কৃতি

[লিখেছেনঃ সাইফুল ইসলাম] সংস্কৃতির ব্যাপকতা ঠিক মহাকাশের মত, দুটোই সৃষ্টি অবধি প্রসারমান এবং কখনোই একই স্থানে স্থির থাকে না। বেঁচে থাকার তাগিদে বা জীবনের প্রয়োজনে মানুষ সদা স্থানান্তরিত জীবনধারণে অভ্যস্ত। সে-কারনে মানুষ প্রাক আধুনিক সভ্যতায় প্রাকৃতিক পরিব্রাজন নীতি গ্রহণ করেছিল, আর বর্তমানে আধুনিক সভ্যতার সুবিধাদি গ্রহনের জন্য প্রতিনিয়ত স্থানান্তরিত হচ্ছে। সেই সাথে সংস্কৃতিও স্থানান্তরিত হয়ে …

Continue reading লালন ও আমাদের সংস্কৃতি

চার্বাক দর্শন

[লিখেছেনঃ প্রিয়ংকা গায়েন] ভারতীয় দর্শন মূলত আধ্যাত্মবাদের দর্শন। ভারতীয় দার্শনিকগণ তত্ত্ব বা সত্যকে অন্তর্জগতে উপলব্ধিকরণের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। সেকারণে তাঁরা জড়াতিরিক্ত আত্মা, ঈশ্বর, পরলোক, কর্মফলবাদ, মুক্তি এইসকল অতিপ্রাকৃত বিষয়ে বিশ্বাস রাখেন। একমাত্র ব্যতিক্রম চার্বাক দর্শন। তাঁরা জগৎ এবং সৃষ্টিতত্ত্বকে জড়বাদ দিয়েই ব্যাখ্যা করেছেন। ভারতীয় দর্শনঃচার্বাক দর্শন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনার পূর্বে ভারতীয় অন্যান্য দর্শন সম্পর্কে …

Continue reading চার্বাক দর্শন